টাঙ্গাইলমঙ্গলবার , ১৯শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. খেলাধুলা
  5. গণমাধ্যম
  6. জবস
  7. জাতীয়
  8. টপ নিউজ
  9. টাঙ্গাইলে করোনা মহামারি
  10. তথ্যপ্রযুক্তি

কৃষি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট পেল জগন্নাথপুর ও মোহনগঞ্জ উপজেলা

অনলাইন ডেস্ক
আপডেট : অক্টোবর ১২, ২০২১
Link Copied!

আধুনিক কৃষি শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে মানবসম্পদ উন্নয়নে দেশের দুটি জেলার দুটি উপজেলার কৃষি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট স্থাপন করা হবে। এ লক্ষ্যে গত ৫ অক্টোবর কৃষি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় ‘জগন্নাথপুর ও মোহনগঞ্জ উপজেলায় দুটি কৃষি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট (এটিআই) স্থাপন’ শীর্ষক প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর (ডিএই)।

পরিকল্পনা কমিশনের সংশ্লিষ্টরা জানান, সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলায় এবং নেত্রকোনা জেলার মোহনগঞ্জ উপজেলায় দুটি কৃষি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট (এটিআই) স্থাপন করা হবে। নতুন দুটি এটিআই এর মাধ্যমে আধুনিক কৃষি শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ ব্যবস্থাপনায় মানব সম্পদের উন্নয়ন করে খাদ্য নিরাপত্তা ও আর্থ-সামাজিক অবস্থার টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করা সম্ভব হবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে মোট ৩৫৬ কোটি ৮ লাখ টাকা ব্যয় হবে। চলতি বছরের জুলাই থেকে জুন ২০২৬ সালে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন শেষ হবে।

প্রকল্পের প্রধান কার্যক্রম হচ্ছে- ৩০ একর ভূমি অধিগ্রহণ, ২টি প্রশাসনিক কাম একাডেমিক ভবন, ২টি কৃষক ডরমেটরি ভবন, কর্মকর্তা/কর্মচারীদের ৪টি আবাসিক ভবন, ২টি অতিথি ভবন, ২টি অধ্যক্ষের বাস ভবন, ২টি মসজিদ, ২টি ছাত্রী নিবাস, ২টি ছাত্রাবাস নির্মাণ, ৬ হাজার ৭০ মিটার অভ্যন্তরীণ রাস্তা নির্মাণ, ডিপ্লোমা প্রশিক্ষণের জন্য প্রয়োজনীয় গবেষণা যন্ত্রপাতি এবং আসবাবপত্র সংগ্রহ, ৭৩টি কম্পিউটার, ১৮টি ল্যাপটপ, ৩৭টি স্ক্যানার, ১০টি মাল্টিমিডিয়া, ৮টি ডিসপ্লে বোর্ড ক্রয় এবং স্থানীয় ও বৈদেশিক প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সংশ্লিষ্টরা জানান, অষ্টম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় কৃষি খাতের অন্যতম কৌশল হচ্ছে প্রাতিষ্ঠানিক অবকাঠামো উন্নয়ন করা। পাশাপাশি উন্নত প্রযুক্তিগত সেবা দেওয়ার মাধ্যমে কৃষকের সক্ষমতা ও আয় বৃদ্ধি করা। বিবেচ্য প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে কৃষি বিষয়ে ডিপ্লোমা ডিগ্রির জন্য এ অঞ্চলে প্রাতিষ্ঠানিক অবকাঠামোর সৃষ্টি হবে। যার মাধ্যমে মানবসম্পদের উন্নয়ন ঘটবে এবং কৃষি সেবা সম্প্রসারণ সহজতর হবে। এ বিবেচনায় প্রকল্পটি অষ্টম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ।

পরিকল্পনা কমিশনের কৃষি, পানি সম্পদ ও পল্লী প্রতিষ্ঠান বিভাগের সদস্য (সচিব) রমেন্দ্র নাথ বিশ্বাস বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে দুটি কৃষি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের মাধ্যমে দক্ষ মানবসম্পদ সৃষ্টিসহ আধুনিক ও প্রযুক্তি নির্ভর কৃষি কারিগরি জ্ঞানের প্রসার ঘটবে। যার ফলে কৃষি সম্প্রসারণ কার্যক্রম বেগবান হবে। এজন্য প্রকল্পটি একনেক সভায় অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।