টাঙ্গাইলশুক্রবার , ২২শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. খেলাধুলা
  5. গণমাধ্যম
  6. জবস
  7. জাতীয়
  8. টপ নিউজ
  9. টাঙ্গাইলে করোনা মহামারি
  10. তথ্যপ্রযুক্তি

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে ৬ দিন আমদানি-রফতানি বন্ধ

অনলাইন ডেস্ক
আপডেট : অক্টোবর ১১, ২০২১
Link Copied!

শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর দিয়ে ভারত, নেপাল ও ভুটানের সঙ্গে ৬ দিনের জন্য পাথরসহ সব ধরনের পণ্য আমদানি-রফতানি বন্ধ থাকবে। রোববার (১১ অক্টোবর) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পোর্ট ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ ও আমদানি-রফতানিকারক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক কুদরত-ই খুদা মিলন।

জানা গেছে, দুর্গাপূজা উপলক্ষে দেশের একমাত্র চতুর্দেশীয় স্থলবন্দর বাংলাবান্ধা ও ভারতের ফুলবাড়ী দিয়ে ভারত, নেপাল ও ভুটানের সঙ্গে পাথরসহ সব ধরনের আমদানি-রফতানি আজ থেকে ১৬ অক্টোবর পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। ১৭ অক্টোবর থেকে আমদানি-রফতানি চালু হবে।

তবে বন্দরের আমদানি-রফতানি বন্ধ থাকলেও বন্দের ভেতরের ও ইমিগ্রেশন দিয়ে ভারত-বাংলাদেশের পাসপোর্ট যাত্রী পারাপার স্বাভাবিক থাকবে। এদিকে ভারতীয় কাস্টমের বাংলাদেশি রফতানি পণ্য খালাসে ধীরগতি ও বন্দর অব্যস্থাপনার কারণে কয়েক সপ্তাহ ধরে পণ্য খালাস করতে না পারা দেশীয় চালকরা ৬ দিন বন্ধ থাকার কারণে আরও চরম দুর্ভোগে পড়েছে।

চালকদের দাবি, কয়েক দিন ধরে বন্দরে খেয়ে না খেয়ে দিন কাটালেও তারা পণ্য নিয়ে যেতে পারেনি। এছাড়া হঠাৎ করে দুর্গাপূজায় ৬ দিন বন্ধ ঘোষণা হওয়ায় বিপাকে পড়েছে তারা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলার সিপাইপাড়ার বাজার থেকে বাংলাবান্ধা বাজার পর্যন্ত ৭ কিলোমিটারজুড়ে ট্রাকের দীর্ঘ লাইন। বাংলাদেশ থেকে নেপালে রফতানির উদ্দেশ্যে পণ্য নিয়ে আসা এসব বাংলাদেশি ট্রাকচালকরা পণ্য খালাস করতে না পেরে বিপাকে পড়েছেন।

কথা হয় নারায়ণগঞ্জ থেকে পণ্য নিয়ে আসা ট্রাকচালক হামিদ হোসেনের সঙ্গে। তিনি বলেন, আজ থেকে ২১ দিন আগে আমি ঢাকা থেকে পণ্য নিয়ে এসে বাংলাবান্ধা এসেছি। এখন বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর থেকে ৬ কিলোমিটার আগে জ্যামে আটকা পড়ে আছি। আজ থেকে আরও ৬ দিন বন্ধ থাকবে আমদানি-রফতানি। আমরা অনেক কষ্টে জীবনযাপন করছি।

বাংলাবান্ধা সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল্লাহ আল মামুন মুসা বলেন, সমস্যাটি যেন দ্রুত সমাধান হয় তার জন্য আমরা চেষ্টা করছি। সমস্যাটি সমাধান হলে আমাদের জন্য ভালো হবে।

স্থলবন্দরের পোর্ট ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ বলেন, আগের তুলনায় বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে আমদানি-রফতানি বৃদ্ধি পেয়েছে। যার ফলে বন্দরে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। এছাড়া আমাদের বন্ধরের জায়গা সংকট ও ভারতেও জায়গা সংকটের কারণে ট্রাক পারাপারে ধীরগতি লক্ষ করা যাচ্ছে।

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে শুল্ক স্টেশনের সহকারী কমিশনার মবিন-উল-ইসলাম বলেন, আমদানি-রফতানি বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে পণ্যবাহী ট্রাক আটক পড়ে আছে। তবে সমস্যাটি সমাধানের জন্য চেষ্টা করছি। আশা করি দ্রুত সমস্যাটি সমাধান হবে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।