টাঙ্গাইলমঙ্গলবার , ২৬শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. খেলাধুলা
  5. গণমাধ্যম
  6. জবস
  7. জাতীয়
  8. টপ নিউজ
  9. টাঙ্গাইলে করোনা মহামারি
  10. তথ্যপ্রযুক্তি

ছেলের প্রাণনাশের হুমকি, বিচার চেয়ে কাঁদলেন মা

অনলাইন ডেস্ক
আপডেট : সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২১
Link Copied!

চাঁপাইনবাবগঞ্জে অটোরিকশা ব্যবসায়ী ছেলের ওপর হামলা ও প্রাণনাশের বিচার এবং পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন এক মা। মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় জেলা শহরের পুরাতন বাজারের নিজ বাসভবনে এই সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে অটোরিকশা ব্যবসায়ী মিনাউর রহমান সুমনের মা ধামোসা আকলিমা খাতুন (৬০) আকলিমা বেগম অভিযোগ করে বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার বটতলাহাট এলাকায় আওয়ামী লীগ নেতা ও গ্রামীণ ট্রাভেলস চেয়ারম্যান মোখলেসুর রহমানের জোসনারা শিশু পার্কের পাশে আমার ছেলের আড়াই কাঠা জমি রয়েছে। জমিটি কিনে নেওয়ার জন্য মোখলেসুর রহমান প্রস্তাব দিলে তা ফিরিয়ে দেয় সুমন।

এরপর দীর্ঘদিন থেকে নানা হুমকি দিয়ে আসছে তার লোকজন। এই জমি বিক্রি করতে রাজি না হওয়ায় গত ১৩ সেপ্টেম্বর আমার ছেলে সুমনকে ডেকে নিয়ে হামলা করে আহত করে।

তিনি আরও বলেন, ৩০ থেকে ৩৫ জন মিলে আমার ছেলেকে মারধর করেছে। পরে স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেলা হাসপাতালে ভর্তি করে। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। হাত-পাসহ শরীরে জখম নিয়ে বিছানায় দিন পার করছে সুমন। পরে আমি বাদী হয়ে থানায় মামলা করি। মামলা করায় এখন হামলাকারীরা আমার পরিবারের সদস্যদের প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে।

তিনি বলেন, ঘটনার পর মামলা করতে গেলে মোখলেসুর রহমানের নাম দিতে দেয়নি পুলিশ। এখন পর্যন্ত আসামিকেও আটক করছে না। বিষয়টি জানাতে পুলিশ সুপারের সঙ্গে দেখা করতে চাইলেও দেখা করতে দেয়নি। তাই হামলাকারীদের দ্রুত আটক করে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার এবং জীবনের নিরাপত্তা দাবি করেন তিনি।

এ বিষয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মোখলেসুর রহমান জানান, সুমনের ওপর হামলার ঘটনার সাথে আমি ও আমার ভাই মইদুলের কোনো সম্পর্ক নেই। ওই দিন মারামারির সময় আমরা নিজের অটোরাইস মিলে ছিলাম।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাফফর হোসেন বলেন, ঘটনার পর থানায় মামলা নেওয়া হয়েছে। ছয়জন আসামি জামিনে রয়েছেন। বাকিদের আটক করতে চেষ্টা করছে পুলিশ।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।